• বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বগুড়া বিএসটিআই এর অভিযানে ৯০হাজার টাকা জরিমানা লক্ষ্মীপুরে ভূমিদস্যুদের হামলায় সাংবাদিক মমিন আহত-৩ বীর চট্টলা কাব্য পরিষদের উদ্যোগে পন্ডিত সুদর্শন দাশকে গুনিজন সম্মাননা প্রদান প্রধানমন্ত্রী ২১ গুণীজনের হাতে একুশে পদক তুলে দিলেন লিবিয়া থেকে নৌকায় করে সাগরপথে ইউরোপ যাত্রাকালে তিউনিসীয় উপকূলে নৌযানে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৯ বাংলাদেশী মারা গেছেন যৌনকর্মীসহ লক্ষ্মীপুরে শ্রমিক লীগ নেতা কারাগারে বগুড়ায় মহানাম ও লীলারস যজ্ঞানুষ্ঠান অনুষ্ঠিত বেনাপোলে শিশু ধর্ষনের অভিযোগে ধর্ষক গ্রেফতার মধুপুরে মামলায় জামিনে এসে স্বাক্ষী সহ পরিবারের লোকজনকে মারপিট করার অভিযোগ নোয়াখালীতে গাছ চাপা পড়ে আ.লীগ নেতার মৃত্যু

বঙ্গাব্দের প্রতিষ্ঠাতা মহারাজ নরেন্দ্রাদিত্য শশাঙ্ক

News Desk
আপডেটঃ : শুক্রবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৩

স্টাফ রিপোর্টারঃ

যারা মনে করে মোগল বাদশা আকবর বঙ্গাব্দ চালু করেছে, তাদের মতে-

আকবর দিল্লির সিংহাসনে বসার পরই বঙ্গাব্দ চালু হয়। এই মতে আকবর সিংহাসনে বসেন ইংরেজি ১৫৫৬ সালে। বর্তমানে চলছে ইংরেজি ২০২৩ সাল। যদি ধরে নিই আকবর ১৫৫৬ সালেই বঙ্গাব্দ চালু করেন, তাহলে ইংরেজি ১৫৫৭ সাল হওয়া উচিত বঙ্গাব্দ-১।
সেক্ষেত্রে ইংরেজি ২০২৩ সালে হওয়া উচিত ৪৬৭ বঙ্গাব্দ। অথচ আমরা সকলেই জানি ২০২৩ সালে পালিত হচ্ছে ১৪৩০ বঙ্গাব্দ।

তাহলে আকবর বঙ্গাব্দের প্রতিষ্ঠা করলে, প্রায় হাজার বছরের পার্থক্য আসছে কিভাবে?

তাদের অনেকে আবার বললেন-মোগল বাদশা আকবর নাকি বঙ্গাব্দ প্রচলন করেন ইসলাম ধর্মের আরব্য নবী হজরত মহম্মদের হিজরত-এর বছর অনুসারে। হজরত মহম্মদ মক্কা থেকে মদিনার দিকে যাত্রা বা হিজরত করেন ইংরেজি ৬২২ খ্রিস্টাব্দে।

তাহলে ৬২২ খ্রিস্টাব্দ থেকে বঙ্গাব্দ গণনা শুরু হলে ৬২৪ খ্রিস্টাব্দে বঙ্গাব্দ-১ ধরে আকবর বছর গণনা চালু করেন। তাহলে আমরা যদি হিসেব করি, তাহলে এই বছর ২০২৩ সালে হওয়া উচিত ১৪০১ বঙ্গাব্দ। অথচ এটা ১৪৩০ বঙ্গাব্দ।
তাহলে প্রায় উনতিরিশ বছরের পার্থক্য এল কিভাবে?

কেউ কেউ বলেন আলাউদ্দিন হুসেন শা বঙ্গাব্দ চালু করেছে-

আমাদের জানা উচিত হুসেন শাহের রাজত্বকাল ইংরেজি ১৪৯৪ থেকে ইংরেজির ১৫১৯ সাল পর্যন্ত। ইনি বঙ্গাব্দের প্রবর্তক হলে ইংরেজি ২০২৩ সালে বঙ্গাব্দের বয়স প্রায় ৫০০ বছর।

অথচ আমরা ইংরেজি ২০২৩ সালে ১৪৩০ বঙ্গাব্দ গণনা করছি।
এবার সহজ সরল অঙ্কের হিসেব বা যুক্তির হিসেব দেখি বঙ্গাব্দ চালু হয় কোন সময় এবং কে চালু করে-

বর্তমানে ইংরেজি ২০২৩ সাল এবং বঙ্গাব্দ ১৪৩০, তাহলে বঙ্গাব্দ চালু হয়েছে ইংরেজি ৫৯৩ সালে। আর ইতিহাস বলছে এই সময়ে বাংলার সিংহাসনে বসেন মহারাজ নরেন্দ্রাদিত্য শশাঙ্ক। মহারাজ নরেন্দ্রাদিত্য শশাঙ্ক ৫৯০ থেকে ৬২৫ খ্রিষ্টাব্দের মধ্যে রাজত্ব করেন।

তাহলে বঙ্গাব্দের প্রতিষ্ঠাতা হলেন বাংলার ভূমিপুত্র রাজা শশাঙ্ক। এই ভয়ানক সাংস্কৃতিক আগ্রাসনের দিনে, যখন মিডিয়ায়, ওয়েবসাইটে, খবরে, ভিডিও তে ক্রমাগত মিথ্যা তথ্য ছড়ানো হচ্ছে বঙ্গাব্দের নামে, তখন বঙ্গাব্দের প্রতিষ্ঠাতা শশাঙ্কের নাম মনে রাখা এবং এই তথ্যটিকে সবার মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়াটাই আমাদের দায়িত্ব।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ