• শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০২:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বগুড়ায় ভোট গ্রহনকারী কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত নোয়াখালীতে তিন উপজেলায় আওয়ামী লীগ নেতারা বিজয়ী বগুড়ায় নানা আয়োজনে জেলা কর্মশালা-২০২৪ অনুষ্ঠিত ধামরাইয়ে আওয়ামী লীগের পাঁচ পদধারী প্রার্থীদের হারিয়ে আব্দুল লতিফ উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত মধুপুরে অভ্যন্তরীণ বোরো ধান-চাল সংগ্রহ অভিযানের উদ্বোধন বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস-২০২৪ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত টাঙ্গাইলের মধুপুরে হজ্জ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত বাঁশখালী লবন শ্রমিক কল্যান ইউনিয়ন-এর নির্বাহী কমিটি গঠিত ৪ বার পুরস্কৃার পেলেন গ্রাম পুলিশ ময়না দাস সিলেট-চট্টগ্রাম ফ্রেন্ডশিপ ফাউন্ডেশন চট্টগ্রাম শাখার সভা অনুষ্ঠিত

প্রথম চালানে ভারতে গেলো ৪৫ টন পদ্মার ইলিশ

News Desk
আপডেটঃ : বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

যশোর প্রতিনিধিঃ

সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের আসন্ন দুর্গাপূজা উপলক্ষে সরকারের অনুমোদন পাওয়া তিন হাজার ৯৫০ মেট্রিক টন ইলিশ রপ্তানির প্রথম চালানে ৪৫ টন ৮০০ কেজি ইলিশ গেলো ভারতে।

বৃহস্পতিবার (২১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে কাস্টমস ও মৎস্য দপ্তরের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে বেনাপোল বন্দর দিয়ে ১২টি ট্রাকে করে ভারতে প্রবেশ করে। ৭টি শর্তে ৭৯ টি প্রতিষ্ঠান এসব ইলিশ রপ্তানি করবে।

এরআগে বুধবার (২০ সেপ্টেম্বর) ৭৯টি প্রতিষ্ঠানকে ইলিশ রপ্তানির অনুমতি দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। প্রতিটি প্রতিষ্ঠান ৫০ টন করে ইলিশ রপ্তানি করতে পারবে।

প্রথমদিনের রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানগুলো হলো মাহিমা এন্টারপ্রাইজ, তানিসা এন্টারপ্রাইজ, সেভেন স্টার ফিস প্রসেসিং, রিপা এন্টারপ্রাইজ ও প্যাসিফিক সি ফুড। ভারতের আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের নাম এস আর ইন্টারন্যাশনাল, নাজ ইমপেক্স প্রাইভেট লিমিটেড, বিমল রায় ও বারখা বিকাস ফিস এজেন্সি।

বেনাপোল চেকপোষ্টে ভারতে ইলিশের ট্রাক প্রবেশের সময় তানিশা এন্টারপ্রাইজের ম্যানেজার বলেন, প্রতি কেজি ইলিশ ১০ ডলারে রপ্তানি করা হচ্ছে। যা বাংলাদেশী টাকায় ১১০১ টাকা।

বানিজ্য মন্ত্রনালয়ের চিঠিতে বলা হয়েছে, আসন্ন দূর্গাপূজা উপলক্ষে ইলিশ মাছ রপ্তানির বিষয়ে পাওয়া আবেদন গুলো যাচাই-বাছাই করে শর্ত সাপেে ৭৯টি প্রতিষ্ঠানের প্রত্যেককে ৫০ টন করে ইলিশ রপ্তানির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। তবে, রপ্তানির ক্ষেত্রে ৭টি শর্ত জুড়ে দেওয়া হয়েছে। সেগুলো হলোঃ রপ্তানি নীতি ২০২১-২০২৪ বিধি বিধান অনুসরণ করতে হবে। শুল্ক কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে রপ্তানি অনুমতি পাওয়া পণ্যের কায়িক পরীক্ষা যথাযথ ভাবে করতে হবে। প্রতিটি চালান জাতীয়করণ শেষে রপ্তানি সংক্রান্ত সব কাগজ ই-মেইল করতে হবে। অনুমোদিত পরিমানের চেয়ে বেশী রপ্তানি করা যাবে না।

বেনাপোল স্থলবন্দরের ফিশারিজ কোয়ারেন্টাইন কর্মকর্তা মাহবুুবুর রহমান জানান, ইলিশ মাছ রপ্তানি নিষিদ্ধ হলেও দুর্গাপূজা উপলক্ষে এবার তিন হাজার ৯৫০ মেট্রিক টন ইলিশ রপ্তানির অনুমোদন দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এসব ইলিশ রপ্তানির অনুমতি পেয়েছে বাংলাদেশের ৭৯টি প্রতিষ্ঠান। প্রতিটি প্রতিষ্ঠানকে ৫০ মেট্রিক টন ইলিশ রপ্তানির অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার ইলিশের প্রথম চালানে ১২টি ট্রাকে করে ৪৫ টন ৮০০ কেজি মাছ ভারতে প্রবেশ করেছে। পর্যায়ক্রমে বাকি ইলিশ রপ্তানি হবে। আগামী ৩০ অক্টোবরের মধ্যে সব ইলিশ রপ্তানির নির্দেশনা রয়েছে।

পণ্য চালান রপ্তানিকালে শুল্ক কর্তৃক কাস্টমস ডেটা সিস্টেম পরীক্ষা করে অনুমোদিত পরিমাণের অতিরিক্ত পণ্য রপ্তানি না করার বিষয়টি নিশ্চিত হবেন। এ অনুমতির মেয়াদ আগামী ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত কার্যকর থাকবে। তবে,সরকার মৎস আহরণ ও পরিবহণের ক্ষেত্রে কোনরুপ বিধি নিষেধ আরোপ করলে তা কার্যকর হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এ অনুমতির মেয়াদ শেষ হবে।

বেনাপোল স্থলবন্দরের পরিচালক আব্দুল জলিল জানান, ইলিশ রপ্তানির প্রথম চালানে ৪৫ টন ৮০০ মেট্রিক টন আজ বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতে গেছে। দ্রুত রফতানি করার জন্য মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ