• শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৭:৩৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বগুড়ায় ভোট গ্রহনকারী কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত নোয়াখালীতে তিন উপজেলায় আওয়ামী লীগ নেতারা বিজয়ী বগুড়ায় নানা আয়োজনে জেলা কর্মশালা-২০২৪ অনুষ্ঠিত ধামরাইয়ে আওয়ামী লীগের পাঁচ পদধারী প্রার্থীদের হারিয়ে আব্দুল লতিফ উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত মধুপুরে অভ্যন্তরীণ বোরো ধান-চাল সংগ্রহ অভিযানের উদ্বোধন বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস-২০২৪ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত টাঙ্গাইলের মধুপুরে হজ্জ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত বাঁশখালী লবন শ্রমিক কল্যান ইউনিয়ন-এর নির্বাহী কমিটি গঠিত ৪ বার পুরস্কৃার পেলেন গ্রাম পুলিশ ময়না দাস সিলেট-চট্টগ্রাম ফ্রেন্ডশিপ ফাউন্ডেশন চট্টগ্রাম শাখার সভা অনুষ্ঠিত

লক্ষ্মীপুরে ককটেল ফাটিয়ে দোকানে ডাকাতি স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের মানববন্ধন

News Desk
আপডেটঃ : মঙ্গলবার, ১৩ জুন, ২০২৩

সোহেল হোসেন, লক্ষ্মীপুর থেকেঃ

লক্ষ্মীপুর জেলাতে ককটেল ফাটিয়ে দোকানে ঢুকে ব্যবসায়ী অপু কর্মকারকে কুপিয়ে স্বর্ণালংকার লুটের ঘটনায় ধর্মঘট ও মানববন্ধন করেছে ব্যবসায়ীরা। সোমবার (১২ জুন) বিকেল ৪ টার দিকে বৃষ্টি উপেক্ষা করে ছাতা মাথায় দিয়ে লক্ষ্মীপুর প্রেস ক্লাবের সামনে স্বর্ণ ব্যবসায়ী ও কর্মচারীরা মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নেয়। বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাজুস) লক্ষ্মীপুর জেলা শাখার উদ্যোগে আয়োজিত ঘন্টাব্যাপী এই কর্মসূচিতে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার প্রতিনিধিরা বক্তব্য রাখেন।

বাজুসের লক্ষ্মীপুর জেলা শাখার সভাপতি হরিহর পালের সভাপতিত্বে এতে উপস্থিত ছিলেন লক্ষ্মীপুর বণিক সমিতির সহ-সভাপতি আবদুল আজিজ, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, বাজুসের জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ কুরী, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সমীর কর্মকার, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি শংকর মজুমদার, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মিলন মন্ডল, পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি স্বপন দেবনাথ, সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক শিমুল সাহা ও বাজুসের জেলা শাখার সদস্য অজয় রায় প্রমুখ।

বাজুস জেলা কমিটি সূত্র জানায়, শনিবার (১০ জুন) আমাদের জরুরি সভা করা হয়েছে। এতে আমরা দোকান বন্ধ রেখে ও মানববন্ধন কর্মসূচির সিদ্ধান্ত নিয়েছি। দোকান বন্ধ রেখে জেলার ৫ শতাধিক স্বর্ণব্যবসায়ী কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেছেন। বৃষ্টি উপেক্ষা করে আয়োজিত মানববন্ধনেও দোকান মালিক ও কর্মচারীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেছে।

বক্তারা বলেন, ঘটনার দিন ডাকাতদলের গাড়ি সড়কে দুর্ঘটনা ঘটানোর কারণে পুলিশ দুইজনকে গ্রেপ্তার করতে পেরেছে। এরপর ৫ দিন পার হয়ে গেলেও অন্য আসামিদের গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। এই ঘটনার রহস্যও তারা উদঘাটন করতে পারেনি। অপুর দোকানে লুট হওয়া স্বর্ণালংকারও উদ্ধার হয়নি। ডাকাতদের কোপে আহত অপু ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালেের বেডে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। দ্রুত মামলার অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তারের দাবি জানাচ্ছি। তা না হলে আন্দেলন চলবে রাজপথে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ