• বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:০২ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বগুড়া বিএসটিআই এর অভিযানে ৯০হাজার টাকা জরিমানা লক্ষ্মীপুরে ভূমিদস্যুদের হামলায় সাংবাদিক মমিন আহত-৩ বীর চট্টলা কাব্য পরিষদের উদ্যোগে পন্ডিত সুদর্শন দাশকে গুনিজন সম্মাননা প্রদান প্রধানমন্ত্রী ২১ গুণীজনের হাতে একুশে পদক তুলে দিলেন লিবিয়া থেকে নৌকায় করে সাগরপথে ইউরোপ যাত্রাকালে তিউনিসীয় উপকূলে নৌযানে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ৯ বাংলাদেশী মারা গেছেন যৌনকর্মীসহ লক্ষ্মীপুরে শ্রমিক লীগ নেতা কারাগারে বগুড়ায় মহানাম ও লীলারস যজ্ঞানুষ্ঠান অনুষ্ঠিত বেনাপোলে শিশু ধর্ষনের অভিযোগে ধর্ষক গ্রেফতার মধুপুরে মামলায় জামিনে এসে স্বাক্ষী সহ পরিবারের লোকজনকে মারপিট করার অভিযোগ নোয়াখালীতে গাছ চাপা পড়ে আ.লীগ নেতার মৃত্যু

বগুড়া হজরত শাহ সুলতান মাহমুদ বলখী (রহ.) এর মাজারের ৯টি দানবাক্সে মিলল প্রায় ২৪ লাখ টাকা

News Desk
আপডেটঃ : শনিবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০২৩

বগুড়া প্রতিনিধিঃ

বগুড়ার মহাস্থানে হজরত শাহ সুলতান মাহমুদ বলখী (রহ.) মাজারের দানবাক্সের টাকা গণনা ৯টি দানবাক্স থেকে ২৩ লাখ ৮২ হাজার ২৯৬ টাকা পাওয়া গেছে। মাজার এলাকায় থাকা ওই ৯টি দানবাক্সে থেকে এই টাকা ছাড়াও স্বর্ণালংকার ও বৈদেশিক মুদ্রাও পাওয়া গেছে দানবাক্সগুলোতে।

মহাস্থান মাজার কমিটির সভাপতি বগুড়া জেলা প্রশাসকের নির্দেশে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাদমান আকিবের তত্ত্বাবধানে বুধবার (৬ ডিসেম্বর) থেকে শুরু আজ বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) বিকেল পর্যন্ত দানবাক্স খুলে টাকা গণনা করা হয়। প্রথমদিন ৯টি দানবাক্সের মধ্যে ছোট আকৃতির ৭টি সিন্দুক খোলা হয়। গণনা শেষে এই ৭টি দানবাক্সে ৮ লাখ ২৪ হাজার ৬১৫ টাকা পাওয়া যায়। দ্বিতীয় দিন খোলা হয় বড় দুটি দানবাক্স। সেখানে মেলে ১৫ লাখ ৫৭ হাজার ৬৮১ টাকা

মহাস্থান উচ্চ বিদ্যালয়ের ২০ জন শিক্ষার্থীর পাশাপাশি অগ্রণী ব্যাংক মহাস্থান শাখার ১২ জন কর্মকর্তা এবং মাজারে কর্মরত ১০ জন কর্মচারী টাকা গণনার কাজে অংশ নেন। এ সময় মাজার কমিটির সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন। দানবাক্স খুলে সেখানে ১৮টি স্বর্ণের নাকফুল ছাড়াও কিছু স্বর্ণালঙ্কার ও বৈদেশিক মুদ্রা পাওয়া গেছে।

মহাস্থান মাজারের প্রশাসনিক কর্মকর্তা জাহিদুর রহমান জানান, মাজার কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তিন মাস পর পর দানবাক্সগুলো খোলার কথা থাকলেও এবার খোলা হয়েছে প্রায় সাড়ে ৪ মাস পর। সর্বশেষ গত ১৬ জুলাই দানবাক্সগুলো খুলে দুদিনব্যাপী গণনা শেষে ৩৪ লাখ ৮৯ হাজার টাকা পাওয়া গিয়েছিল।

এর আগে গত মার্চ মাসে দানবাক্স খুলে পাওয়া যায় ২৮ লাখ ৮৪ হাজার টাকা। এসব টাকা অগ্রণী ব্যাংক মহাস্থান শাখায় জমা করা হয়। মাজারের উন্নয়নে এই টাকা ব্যয় করা হয় বলেও জানান তিনি। তিনি বলেন, ‘আগে মহাস্থান মাজারের দানবাক্সে টাকা দিতে বাসস্ট্যান্ডে গাড়ির গতি কমানো হতো। মহাসড়ক উন্নয়নের ফলে এখন সেখানে ওভারপাস নির্মিত হওয়ায় দানের পরিমাণ কমেছে। কারণ ওভারপাস দিয়ে অতিক্রম করা পরিবহনের যাত্রীরা ইচ্ছা থাকলেও মাজারে কোনো দান করতে পারছেন না।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ